বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৫৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের ৫৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত | ফরিদপুর সংবাদ  ফরিদপুরে ভোক্তা অধিকার আইনে ত্রিশহাজার  টাকার জরিমানা আদায় | ফরিদপুর সংবাদ  ফরিদপুরে জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত | ফরিদপুর সংবাদ  ফরিদপুর জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত হয়েছে | ফরিদপুর সংবাদ  সদরপুরে স্থানীয় সরকার দিবস উপলক্ষে র‌্যালীও আলোচনা সভা | ফরিদপুর সংবাদ  সালথায় জেলা প্রশাসক শীতকালীন খেলার ফাইনাল অনুষ্টিত | ফরিদপুর সংবাদ  আলফাডাঙ্গায় জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত | ফরিদপুর সংবাদ  আলফাডাঙ্গায় জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস পালিত | ফরিদপুর সংবাদ  সালথায় স্থানীয় সরকার দিবসে র‍্যালি ও আলোচনা সভা | ফরিদপুর সংবাদ  সালথার জয়ঝাপ উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত | ফরিদপুর সংবাদ 

হারিয়ে যাচ্ছে বাঁশ শিল্প, ভালো নেই কারিগররা | ফরিদপুর সংবাদ 

সজিব মোল্লা আকাশ , মধুখালি প্রতিনিধিঃ
  • Update Time : শুক্রবার, ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
  • ১৭০ Time View

বাঁশের তৈরি বিভিন্ন উপকরণকে জীবিকার প্রধান বাহক হিসাবে আঁকড়ে রেখেছে ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার গুটি কয়েক পরিবারের কিছু মানুষ। এই বাঁশই বর্তমানে তাদের জীবিকার প্রধান বাহক। কিন্তু দিন দিন বাঁশের তৈরি বিভিন্ন পন্যের চাহিদা কমে যাওয়ায় ভালো নেই এই শিল্পের সঙ্গে জড়িত

কারিগররা।

মধুখালী উপজেলা থেকে ক্রমান্বয়ে হারিয়ে যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী বাশঁশিল্প। বাঁশের তৈরি পণ্যের কদর আর তেমন নেই বললেই চলে। ঐতিহ্য হারাতে বসেছে এই শিল্পটি। গ্রামীণ জনপদের মানুষ গৃহস্থলি, কৃষি
ও ব্যবসা ক্ষেত্রে বাঁশের তৈরি সরঞ্জামাদি ব্যাবহার করলেও, এখন বিলুপ্তির পথে এ শিল্পটি।এক সময় বাসা-বাড়ি, অফিস-আদালত সবখানেই ব্যবহার করা হতো বাঁশের তৈরি আসবাবপত্র। এখন সময়ের বিবর্তনে বদলে গেছে চিরচেনা সেই চিত্র। এরপরেও উপজেলার গুটি কয়েক পরিবারের মানুষ ঐতিহ্য ধরে রাখাসহ জীবন ও জীবিকার তাগিদে বাঁশ আর বেঁতশিল্পকে
আঁকড়ে ধরে রেখেছেন।বর্তমানে সল্প দামে হাতের নাগালে প্লাস্টিক সামগ্রী পাওয়াতে কদর বেড়ে যাওয়ায় কুটির শিল্পের চাহিদা এখন আর তেমন নেই। তাছাড়াও
দুস্প্রাপ্য হয়ে পড়েছে এ শিল্পের কাঁচামাল বাঁশ। এখন আর আগের মতো বাড়ির আশে-পাশে বাঁশের ঝোপ রাখছে না কেউ, সেগুলো কেটে বিভিন্ন চাষাবাদসহ দালান তৈরি করছে মানুষ, তাই কাঁচামাল আর
আগের মতো সহজেই পাওয়া যায় না। বাজারগুলো দখল করেছে প্লাস্টিক, এলুম্যানিয়াম, স্টিলসহ বিভিন্ন দ্রব্য। তাছাড়াও প্লাস্টিক ও অন্যান্য দ্রব্যের পণ্য টেকসই ও স্বল্পমূল্যে পাওয়ায় সাধারণ মানুষের চোখ এখন
সেগুলোর ওপর।জানা যায়, এক সময় দেশের বিস্তীর্ণর্ জনপদে বাঁশ দিয়ে তৈরি হতো গৃহস্থালী ও সৌখিন পণ্যসামগ্রী। বাড়ির পাশের ঝাড় থেকে তরতাজা
বাঁশ কেটে গৃহিণীরা তৈরি করতেন হরেক রকমের পণ্য। এছারাও বিভিন্ন পণ্য তৈরি করতে বাশঁ ক্রয় করে আনতে হয় চট্টগ্রাম থেকে।তৈরিকৃত পন্য নিজেদের ব্যাবহারের পাশাপাশি, বাজারে বিক্রি করে
চলতো তাদের জীবন-যাপন। তবে এখনও গ্রামীণ উৎসব ও মেলাগুলোতে বাঁশের তৈরি কুলা, চালুন, খাঁচা, মাচাং, মই, চাটাই, ঢোল, গোলা, ওড়া, বাউনি, ঝুঁড়ি, ডুলা, মোড়া, মাছ ধরার চাঁই, মাথাল, বইপত্র রাখার
র‍্যাকসহ বিভিন্ন পণ্য সাজিয়ে বসে আছেন এ পেশার কারিগররা।পৌর বাজারে বাঁশ শিল্প বিক্রি করতে আসা মোঃ আখেরউদ্দীন বিশ্বাসের ছেলে মোঃ হান্নান বিশ্বাস বলেন, শিল্পের দুর্দিনে হাতে গোনা কিছু সংখ্যক পরিবার শিল্পটিকে আঁকড়ে ধরে আছেন। অনেকে এ পেশা
ছেড়ে অন্যপেশায় গেলেও পূর্বপুরুষের হাতেখড়ি এই পেশাকে কিছুতেই ছাড়তে পারেননি তারা। তাছারা বর্তমানে কাচাঁমালের দাম হওয়ায় আমাদের তৈরিকৃত পণ্যেরও দাম বেশি নিতে হয়। প্রতিহাটে যা
বিক্রি করি তা দিয়ে সংসার চালানো আমাদের জন্য কষ্টকর হয়ে দারিয়েছে। সরকার যদি আমাদের দিকে দৃষ্টি দেন তাহলে আমরা পরিবার পরিজন নিয়ে দিন কাটাতে পারবো।পৌরসভার দাওয়ালীয়াপাড়া এলাকার প্রবীণ মো: রহমত বিশ্বাসের জানান জীবনের সব সময়টা পার করেছি বাশেঁর তৈরি বিভিন্ন পণ্যদিয়ে। যতই দিন যাচ্ছে ততই কমে যাচ্ছে এই হস্তশিল্পের চাহিদা। মূল্যবৃদ্ধি, বাঁশের দুষ্প্রাপ্যতা আর অন্যদিকে প্লাস্টিক, সিলভার ও মেলামাইন জাতীয় হালকা টেকসই সামগ্রী নাগরিক জীবনে গ্রামীণ হস্তশিল্পের
পণ্যকে হটিয়ে দিয়েছে। এখন এ কাজ করে জীবন চালানো কঠিন ।প্রতিদিন তাদের তৈরি কিছু পণ্য পৌর বাজারের সপ্তাহের দুইহাট সহ গ্রাম-গঞ্জে নিয়ে ফেরি করলে, কিছু সৌখিন মানুষ আছে তাদের পণ্য
কিনেন। বেলা শেষে যা বিক্রি হয় তা দিয়ে তরি-তরকারি কিনে বাড়ি ফেরেন তারা। এভাবেই তাদের জীবন-জীবিকা চলে। বর্তমান সময়ে দ্রব্যমুলের দাম বেশি হওয়ায়, স্বল্প আয়ের এ পেশায় টিকে থাকা কঠিন হয়ে পড়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
error: Content is protected !!

Advertise

Ads

Address

Office : Room#1002, Kanaipur, Faridpur, Dhaka. Mobile : 01719-609027, Email : faridpursangbad.com
© All rights reserved 2020. Faridpur Sangbad

Design & Developed By: JM IT SOLUTION